যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশী ছেলে-মেয়েদের সমকামিতা এখন ভয়ংকর রূপ ধারন!

Post Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত নিজস্ব সংবাদদাতার পাঠানো এক সংবাদের ভিত্তিতে প্রতিবেদন। গত ১জানুয়ারী ২০১৯ তারিখে আমাদের যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত এক প্রতিবেদকের পাঠানো প্রতিবেদনে বলা হয় যুক্তরাজ্যে অবস্থানরত বাঙ্গালী ছেলে-মেয়েদের মধ্যে সমকামিতা (পায়ুকামিতা) এখন একটি ভয়ংকর রূপ ধারণ করেছে। এটা এমনকি তারা ধর্ম, সংস্কৃতি এবং দেশের আইনের উর্ধ্বে গিয়েও তাদের এই সমকামিতাকে অব্যাহত রেখেছে। ছবিতে মেয়েদের মতো দেখতে ক্রস-ড্রেস পরিহিত ৪ বাংলাদেশী যুবক এবং সাথে আছেন আরো কয়েকজন সমকামী যুবক। ছবিটি তোলা হয়েছে যুক্তরাজ্যের ওয়েস্ট লন্ডনে অবস্থিত দেশী বয়েজ নামক একটি সাউথ এশিয়ান ক্লাব থেকে। গত ৩১ শে ডিসেম্বর থার্টি ফার্স্ট নাইটে তাদের বিশেষ পার্টি চলাকালীন সময়ে তাদের কয়েকজনের সাথে একান্ত আলাপচারিতায় জানা যায় কিভাবে তারা এদেশে এসে সমকামিতায় আসক্ত হয়ে পড়েছেন। এদের মধ্যে আবার কয়েকজনের কাছ থেকে শোনা যায় যে, তারা জন্মসূত্রেই একেকজন সমকামি। কিন্তু পরিবার, সমাজ এবং আইনের ভয়ে বাংলাদেশে তাদের সমকামিতাকে প্রকাশ করতে পারেনি। তাদের ধারনা এদেশে তারা স্বাধীনভাবে তাদের ইচ্ছামতো এবং নিজেদের পছন্দনীয় সমলিঙ্গের মানুষ নির্বাচন করতে পারেন এবং নিজেদের প্রয়োজনীয় সব চাহিদা মেটাতে পারে যেটা বাংলাদেশের মতো শক্তিশালী একটা কট্টর মুসলিম দেশে কোনভাবেই সম্ভব নয়। ছবিতে উপস্থিত ক্রস-ড্রেস পরিহিত আরিফুল, রুবেল, শফিউল এবং আলীর সাথে কথা বলে জানা যায় যে, তারা নিয়মিত মেয়েদের মতো পোষাক পরিধান করে এবং বেশ-ভুষা ধারন করে। যুক্তরাজ্যে অবস্থিত বিভিন্ন সমকামি ক্লাবগুলোতে যাতায়াত করে থাকে এবং ক্লাবে বিভিন্ন সমকামিদের বিভিন্ন আনন্দ দিয়ে থাকে আর ইংরেজীতে এদেরকে (ড্রাগ কুইন) বলা হয়ে থাকে। সবচেয়ে মজার বিষয় হচ্ছে এতে তারা কোন ধরনের অস্বস্থিবোধও করছে না। 
ইতিপূর্বে ২০১৬ সালের ২৫ শে এপ্রিল আমাদের দেশের দুজন সমকামিকে খুবই নৃশংসভাবে তাদেরই নিজেদের ফ্ল্যাটে হত্যা করা হয়। এতকিছুর পরেও তারা নির্ভয়ে তাদের এই সমকামিতাকে অব্যাহত রেখেছে।