জাতির কাছে বীরমুক্তিযোদ্ধা হুইপ কন্যার প্রশ্ন?

Post Image

স্বার্থপরে ভরপুর এ পৃথিবী এখনও এতো সুন্দর কেন বলতে পারেন কী? কারণ এখানে এমন কিছু মানুষ রয়ে গেছেন যাদের হয়তো নাম-যশ থাকলেও চিত্তের উদারতায় এরা ছাড়িয়ে গেছেন সবার উর্ধ্বে। তেমনি এক উদারচিত্তের লোক হলেন আমার বাবা। 

আজকের দিনের আদর্শ মানুষের সংখ্যা আমার ঠিক জানা নাই। স্কুলের ইতিহাস বইতে অনেক আদর্শ মানুষের গল্প পড়েছি যারা শুধুই জনসেবায় নিজেদের জীবন উৎসর্গ করে গেছেন। নিজের কথা কখনই ভাবে নাই, কখনোই ব্যক্তিস্বার্থে কিছু করেন নাই। এমন একজন মানুষের সান্নিধ্যে আমি বড় হতে পেরেছি।।

তার কিশোর জীবন বেড়ে উঠার সময়ে মুক্তিযুদ্ধ শুরু হয়ে যায়। শেখ মুজিবুর রহমানের বজ্র কন্ঠের বক্তৃতা শুনলে সেই কচি বয়সেই তার গায়ের রক্ত গরম হয়ে যেত। শেখ মুজিব যদি বাংলাদেশ তৈরির নীলনকশার মূল অংকন শিল্পী না হতেন আর যদি তার মত বীর মুক্তিযোদ্ধারা এগিয়ে না আসতেন, তাহলে আমরা হয়তো স্বাধীন দেশের পাসপোর্ট নিয়ে বুক ফুলিয়ে দেশ বিদেশ ঘুরে বেড়াতে পারতাম না। 

দেশ স্বাধীন হয়ে গেল। বিদেশীরা আর আমাদের ওদের করায়ত্বে রাখতে পারে নাই। কিন্তু স্বাধীনতা যেন আমাদের আত্মমর্যাদা বোধ, মূল্যবোধ এসব কিছুই কেড়ে নিল। 

আর তাইতো -
আজ আমরা সেই রনাঙ্গনের বীরমুক্তিযোদ্ধা শেরপুরের মানুষের নয়নের মনি, যিনি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর ডাকে সাড়া দিয়ে দেশ প্রেম বুকে নিয়ে অতি অল্প বয়সে গেরিলা যুদ্ধ অংশ গ্রহণ  করে এত সুন্দর  স্বাধীন দেশ উপহার দিয়েছে, যিনি রাত দিন বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মাণে অক্লান্ত পরিশ্রম  করে যাচ্ছেন, যিনি শেরপুর সরকারি কলেজের হাজারো ছাত্রের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত ভিপি, যার কর্মনিষ্ঠা সততা যাকে বার বার শেরপুরের মানুষ ভোট দিয়ে নির্বাচিত করে জননেত্রী দেশরত্ন শেখ হাসিনাকে এই শেরপুরের আসন নৌকা মার্কার বিজয় গাথা উপহার দিয়েছেন, যার প্রমাণ রেখেছেন উনার বিভিন্ন সামাজিক উন্নয়ন অবকাঠামো স্কুল, কলেজ, মাদ্রাসা, কমিউনিটি ক্লিনিক, যিনি একবার উপজেলা চেয়ারম্যান চার বার এমপি হয়েও ব্যাংকের কাছ থেকে মাসিক হিসাবে ঋণ নিয়ে  বরাদ্দকৃত  বিশ বছরে মাত্র একটি বাড়ি করেছেন, যিনি হুইপ হওয়ার আগে ১৫ বছর এম পি থাকা সত্তেও সব সময় কাউন্টার বাসে যাতায়াত করতেন, যিনি আজ পযন্ত নিজের কাপড়-বাসন নিজ হাতে ধৌত করেন, যিনি এখনো সাধারণ মানুষের মত জীবন পরিচালনা করে, যার মধ্যে এতটুকু সৌখিনতার ছাপ নেই আর এটা শেরপুরের সাধারন আম জনতা জানে, আর জানে বলেই উনাকে বার বার ভোট দিয়ে নির্বাচিত করেন- তিনি হলেন শেরপুর জেলা আওয়ামীলীগ এর বিপ্লবী সভাপতি মহান জাতীয় সংসদের হুইপ আতিউর রহমান আতিক এম পি;
-তাকেও  ছাড় দিচ্ছি না।
ছিঃ ছিঃ! লজ্জা!! ধিক্কার!!! 

আজ  এমন একটি সময় শেরপুরের উন্নয়নে বাধাগ্রস্থ করার জন্য স্বার্থন্বেষী একটি মহল উনার মত মাটির মানুষ কে নিয়ে নোংরামী শুরু করছে!
হ্যা আপনাদের কেই বলছি; এসব নোংরামী বন্ধ করেন, কারন শেরপুরের আম জনতা জানে হুইপ আতিক কতোটা স্বচ্ছ ও পবিত্র। 

জাতির কাছে আমি জানতে চাই এক জন বীর মুক্তিযোদ্ধা শেরপুর সরকারি কলেজের হাজারো ছাত্রের প্রত্যক্ষ ভোটে নির্বাচিত ভিপি, একটানা চার বারের নির্বাচিত এম পি যার ভোট দিন দিন বাড়ছে বৈ কমছে না, মহান জাতিয় সংসদের হুইপ শেরপুর জেলা আওয়ামীলীগের সফল সভাপতি Atiur Rahman Atik MP কি একটি বাড়ি করার যোগ্যতা রাখেনা ?? এর জন্য দুদকের তলব ?? হাস্যকর মনে হচ্ছে বিষয়টা; তলব করে লাভ কি?? তার সততা সম্পর্কে পুরো শেরপুর বাসি জানে, তারা জানে কে দূর্নীতিবাজ আর কে সাধারন মানুষের নেতা??? তাই কোন ষড়যন্ত্র করে লাভ হবেনা;
জয় বাংলা
জয় বঙ্গবন্ধু।।

হুইপ কন্যা, ডাঃ শারমিন রহমান অমি

\
সম্পাদক ও প্রকাশক
অ্যাড.এ.জেড.এম. আব্দুস সবুর
নির্বাহি সম্পাদক : অ্যাড. নূরে আলম সিদ্দিক
যোগাযোগ : ৮৩ বি, মৌচাক টাওয়ার, মালিবাগ মোড়, ঢাকা -১২১৭ । নিউজ রুম মোবাইল :০১৭৯৬-২০৬০৬৪
নিউজ রুম ইমেইল : news.deshbd24@gmail.com